• বীমা সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সৃষ্টি বাংলাদেশের সর্বপ্রথম বীমা ব্লগে আপনাকে স্বাগতম
আজ বৃহস্পতিবার | ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সময়ঃ ১০:৩৭ পূর্বাহ্ন

Photo
বীমা শিল্পে গ্রাহক সুরক্ষায় কলসেন্টার এবং মেডিয়েশন সেন্টারের ভূমিকা

খলিল আহমেদ: বাংলাদেশের বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষে বীমা গ্রাহকের নিরাপত্তার বিধান করতে অভিযোগ শাখা অনেক আগেই খোলা হয়েছে এবং বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য হাইকোর্ট ডিভিশনের অবসরপ্রাপ্ত বিচারক নিয়োজিত আছেন। এ বছরের ৭ জুলাই থাইল্যান্ডে গিয়ে দেখলাম তাদের বীমা কমিশনের অফিসে অভিযোগ ইউনিট, কলসেন্টার, বিরোধ নিষ্পত্তি এবং ইন্স্যুরেন্স মেডিয়েশন সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। কলসেন্টারের মাধ্যমে গ্রাহক সহজেই তার কোন তথ্য জানার ইচ্ছা হলে তা জানতে পারছেন এবং কোন অভিযোগ থাকলে প্রতিকারের উপায় জানতে পারছেন। একটি বিষয় খুব ভাল লেগেছে তিন জন প্রতিবন্ধী কলসেন্টারে কাজ করার সুযোগ পেয়েছে। বীমা বিষয়টি একটু টেকনিক্যাল হওয়ায় কলসেন্টার বীমা শিক্ষায় অসাধারণ একটি ভূমিকা পালন করছে। কলসেন্টারে গিয়ে দেখলাম দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি হটলাইনে থাকা বীমা গ্রাহককে মটর ইন্স্যুরেন্সের দাবি পেতে হলে করণীয় কী জানিয়ে দিচ্ছেন।

Photo

মেডিয়েশন সেন্টারের কাজ আরো চমৎকার। এ সেন্টারে অভিযোগকারী সরাসরি অভিযোগ দায়ের করেন এবং কমিশনের কর্মকর্তা বিমাকারী ও গ্রাহককে উপস্থিত করে মেডিয়েটরের ভূমিকা পালন করে বিরোধ নিষ্পত্তি করেন। এভাবেই কমিশন অধিকাংশ অভিযোগ নিষ্পত্তি করে থাকে। আরেকটি মজার বিষয় হলো কমিশনের কর্মকর্তাগণ পুলিশের ন্যায় বিভিন্ন র‍্যাংক সম্পন্ন পোষাকের পরিধান করছে। থাইল্যান্ডের কমিশনের ৬৬ শাখা অফিসের মাধ্যমে প্রায় ৭০০ জনবল বীমা পরিসেবায় নিয়োজিত আছে। থাইল্যান্ডে লাইফে ২২টি এবং নন-লাইফে ৫৪টি মোট ৮৬ টি বীমা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

Photo

আমাদের দেশের ৭৮ টি বীমা প্রতিষ্ঠান এবং বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ ৮০ জনবল দিয়ে বীমা সেবা দেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে।

বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষে কলসেন্টার স্থাপন এবং মেডিয়েশন সেন্টারের ন্যায় একটি ব্যবস্থা অবিলম্বে স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ কয়া হয়েছে। এছাড়া প্রতিটি বিমাকারী যাতে কলসেণ্টার স্থাপন করে তারও উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। পৃথিবীতে বীমা ব্যবসায় যুক্তরাষ্ট্রের পরে চীনের অবস্থান এবং চীনে প্রায় কোম্পানিতে কলসেন্টারের ব্যবস্থা রয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশে কর্তৃপক্ষ গ্রাহকদের অভিযোগ নিষ্পত্তি করছে এবং গ্রাহকদের অনলাইনে অভিযোগ করার সুযোগ সৃষ্টি করা হয়েছ।

কলসেন্টার স্থাপনসহ তাৎক্ষণিক অভিযোগ নিষ্পত্তির এই উদ্যোগ বীমা সম্পর্কে ইতিবাচক ধারণা দিতে পারবে বলে আশা করছি।

লেখক: খলিল আহমেদ, নির্বাহী পরিচালক (যুগ্ম সচিব), বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ, বাংলাদেশ সরকার।


-- ব্লগার Admin Post এর অন্যান্য পোস্টঃ --
  • সর্বশেষ ব্লগ
  • জনপ্রিয় ব্লগ
1 2 2 2 2
আজকের প্রিয় পাঠক
1 0 5 7 1 0 4 9
মোট পাঠক