• বীমা সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সৃষ্টি বাংলাদেশের সর্বপ্রথম বীমা ব্লগে আপনাকে স্বাগতম
আজ রবিবার | ১৮ আগস্ট, ২০১৯ | ৩ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সময়ঃ ১০:৫৮ অপরাহ্ন

Photo
মানুষের আস্থা অর্জনের চেষ্টায় আছে বীমা খাত

যুগ যুগ ধরে অবহেলিত থাকলেও বর্তমান বাংলাদেশে বীমা খাতের উন্নয়নের একটি সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। বীমা আইন, জাতীয় বীমা নীতি এবং বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ গঠনের পর বেশকিছু উদ্যোগ এই খাতকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সহায়তা করছে। বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)’র চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান পাটোয়ারী বলেন তিন বছরের মধ্যে জিডিপিতে দুই শতাংশ প্রবৃদ্ধি যোগ করতে চায় বীমা খাত।

বাংলাদেশে বীমা অনেক পুরনো হলেও সেটি কখনো মানুষের কাছে জনপ্রিয় বা আবশ্যক হয়ে উঠতে পারেনি। বরং বীমার প্রতি নেতিবাচক মনোভাবই যেনো বেশি মানুষের। তবে বীমার প্রয়োজনীয়তাও স্বীকার করেন অনেকে।

আগে বাংলাদেশে বীমা ব্যবসা পরিচালিত হতো ১৯৩৮ সালের আইন দিয়ে। ২০১০ সালে বীমা আইন করে পরের বছর বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ গঠন করে সরকার। এ ধারাবাহিকতায় ২০১৪ সালে প্রণয়ন করা হয় জাতীয় বীমা নীতি।

বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশন (বিআইএ)’র প্রেসিডেন্ট শেখ কবির হোসেন বলেন বীমা করলে জনগন যেমন নিরাপদ অন্যদিকে বীমার পরিধি যদি বাড়ে সারকারের রাজস্ব আয় বাড়েবে তখন বীমা খাতের অংশগ্রহণ প্রবৃদ্ধিতে বেশী হবে।

এমন অবস্থায় সামনে বীমা খাতের উজ্জ্বল সম্ভাবনা দেখছেন খাত সংশ্লিষ্টরা। দেশের গুরুত্বপূর্ণ আর্থিক খাত হিসেবে বীমার উন্নয়ন করে জাতীয় অর্থনীতিতে অবদান বাড়াতে এখন মানুষের আস্থা অর্জনের চেষ্টায় আছে বীমা খাত।


-- ব্লগার M. Mahbubur Rahman এর অন্যান্য পোস্টঃ --
আমার সম্পর্কে
  • সর্বশেষ ব্লগ
  • জনপ্রিয় ব্লগ
2 1 6 4 5
আজকের প্রিয় পাঠক
9 5 6 5 9 7 4
মোট পাঠক