• বীমা সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সৃষ্টি বাংলাদেশের সর্বপ্রথম বীমা ব্লগে আপনাকে স্বাগতম
আজ বৃহস্পতিবার | ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সময়ঃ ১০:০৪ পূর্বাহ্ন

Photo
কিভাবে করবেন শিশুর শিক্ষা বীমা

আপনার সন্তানের জন্য সর্বোত্তম শিক্ষা সুনিশ্চিত করতে পরিকল্পনা প্রয়োজন।

শিক্ষা বীমা সন্তানের ভবিষ্যতের আর্থিক সহায়তাও নিশ্চিত করে।

* জুনিয়র শিক্ষা বীমা করে যেসব প্রতিষ্ঠান, সেসব প্রতিষ্ঠানে খোঁজ নিন।

* আপনার প্রয়োজনীয় কাগজ যেমন ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ফটোকপি, দুই কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি সঙ্গে নিন।

* বীমা প্রতিষ্ঠান থেকে ফরম সংগ্রহ করে তা সঠিক তথ্য দিয়ে পূরণ করুন।

* শিশুর বার্থ সার্টিফিকেট ও দুই কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি লাগবে।

* যার জন্য বীমা করবেন, তার বয়স ১৫ বছরের বেশি যেন না হয় এবং ন্যূনতম বয়সসীমা এক মাস।

* শিশুর অভিভাবক যিনি থাকবেন, তার সর্বোচ্চ বয়স ৫৫ এবং সর্বনিম্ন বয়স হতে হবে ২১ বছর।

বীমার সময়সীমাঃ শিশুর শিক্ষা বীমার সময়সীমা আপনি ১০ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে নিতে পারেন। আপনার সুযোগ-সুবিধা অনুযায়ী আপনি এর সময় নির্ধারণ করবেন।

টাকার পরিমাণঃ ন্যূনতম এক লাখ থেকে সর্বোচ্চ ২০ লাখ টাকার মধ্যে শিক্ষা বীমা করতে পারবেন।

প্রতি মাসে ১ থেকে ১৫ তারিখের মধ্যে বীমার টাকা জমা দিতে হবে। চাইলে ত্রৈমাসিক, ষাণ্মাসিক ও বার্ষিক হিসেবে বীমার প্রিমিয়াম জমা দেওয়া যাবে।

সুবিধাঃ বীমা কোম্পানি শিক্ষা বীমার ওপর বিশেষ বিশেষ কিছু সুবিধা দেয়, যেমন- অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে।

* বীমার টাকা পরিশোধ করতে না পারলে কিছু সুযোগ-সুবিধা পাবেন শিশুর অভিভাবক-

মৃত্যুর ক্ষেত্রেঃ নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বীমার টাকা পরিশোধ না হওয়ার আগেই যদি অভিভাবকের মৃত্যু হয়, তাহলে ভবিষ্যৎ প্রিমিয়াম মওকুফ করা হবে এবং পলিসির মেয়াদপূর্তি পর্যন্ত তা অব্যাহত থাকবে।

* শিশুর অভিভাবক পুরোপুরি পঙ্গুত্ববরণ করলে তাঁকে আর কোনো প্রিমিয়াম জমা দিতে হবে না। উপরন্তু শিশু প্রতি মাসে বীমাকৃত অংকের ১ শতাংশ হারে মেয়াদপূর্তি পর্যন্ত শিক্ষাবৃত্তি পাবে।

* কোনো কোনো প্রতিষ্ঠান দুর্ঘটনার কারণে মৃত্যু হলে বা পঙ্গুত্ববরণ করলে বীমাকৃত টাকার অঙ্ক এককালীন পাবে এবং সঙ্গে সঙ্গে সব প্রিমিয়াম মওকুফ হবে। আর কোনো প্রিমিয়াম জমা দিতে হবে না। এ ছাড়া সব সুবিধা পাবে।

* আর সবকিছু স্বাভাবিক থাকলে মেয়াদপূর্তিতে বীমাকারী বীমাকৃত অঙ্ক এবং সমুদয় বোনাস পাবেন।

সতর্কতা

শিক্ষা বীমা করার সময় শিক্ষা বীমা কোম্পানির যে প্যাকেজগুলো রয়েছে, সেখানে বোনাসের পরিমাণ দেওয়া থাকবে। বোনাসের টাকার পরিমাণ দেখে আপনার সুবিধা ও সামর্থ্য অনুযায়ী প্যাকেজগুলো নিতে হবে।

* বীমা করার সময় সব তথ্য জেনে নিন।


-- ব্লগার সাথী আক্তার এর অন্যান্য পোস্টঃ --
আমার সম্পর্কে
  • সর্বশেষ ব্লগ
  • জনপ্রিয় ব্লগ
1 1 0 1 6
আজকের প্রিয় পাঠক
1 0 5 6 9 8 4 3
মোট পাঠক