• বীমা সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সৃষ্টি বাংলাদেশের সর্বপ্রথম বীমা ব্লগে আপনাকে স্বাগতম
আজ সোমবার | ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সময়ঃ ১২:০৯ পূর্বাহ্ন

Photo
বীমা দেশের টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে

অর্থনৈতিক অগ্রগতি নিশ্চিত করতে নিম্ন আয়ের মানুষকে বীমা সুবিধার আওতাভুক্ত করতে হবে, যা টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিতে থাকা বাংলাদেশের উচিত ব্যাপকভাবে ক্ষুদ্র বীমার প্রসারে উদ্যোগ নেওয়া। ঢাকায় আন্তর্জাতিক ক্ষুদ্র বীমা সম্মেলনের প্রথম দিনে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন পরামর্শ এসেছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিন দিনব্যাপী এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেছেন। বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশন (বিআইএ) ও বিশ্বব্যাপী বীমা খাতের উন্নয়ন নিয়ে কাজ করা সংস্থা জার্মানিভিত্তিক মিউনিখ রি ফাউন্ডেশন যৌথভাবে এ সম্মেলনের আয়োজন করেছে। লুক্সেমবার্গভিত্তিক মাইক্রো ইন্স্যুরেন্স নেটওয়ার্ক এ আয়োজনে (এমআইএন) সার্বিক সহযোগিতা করছে। এবারের সম্মেলনের বিষয়বস্তু হচ্ছে 'জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকির সঙ্গে খাপ খাওয়াতে ক্ষুদ্র বীমার ভূমিকা'।

মাইক্রো ইন্স্যুরেন্স নেটওয়ার্কের নির্বাহী পরিচালক ক্যাথেরিন পালভারমেচার ক্ষুদ্র বীমার প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকির সঙ্গে অধিকাংশ মানুষের স্বাস্থ্য, পশুসম্পদ ও ঘরবাড়ি সম্পর্কিত। বিআইএর সহসভাপতি রুবিনা হামিদ বলেন, ক্ষুদ্র বীমার প্রসার ঘটাতে বীমা কোম্পানির সঙ্গে ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক, এনজিও, মোবাইল ফোন কোম্পানিকে সম্পৃক্ত করা যেতে পারে। তিনি আরও বলেন, বর্তমানে বীমায় খরচ অনেক বেশি। এই খরচও কমাতে হবে। যাতে স্বল্প আয়ের মানুষ সহজে বীমা করতে পারেন। এজন্য নতুন নতুন বীমা স্কিম দরকার।

মিউনিখ রি ফাউন্ডেশন অলাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে ২০০০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। মিউনিখ রি ফাউন্ডেশনের ভাইস চেয়ারম্যান ডার্ক রেনহার্ড বলেন, স্বল্প আয়ের মানুষকে বীমার আওতাভুক্ত করতে হলে দক্ষ বিস্তার ব্যবস্থার মাধ্যমে কম খরচের স্কিমের বিকল্প নেই। বাংলাদেশকে এ বিষয়ে মিউনিখ রি ফাউন্ডেশন সহায়তা করতে প্রস্তুত।  


-- ব্লগার দেলোয়ার হোসেন এর অন্যান্য পোস্টঃ --
আমার সম্পর্কে
  • সর্বশেষ ব্লগ
  • জনপ্রিয় ব্লগ
5 1 3
আজকের প্রিয় পাঠক
1 5 3 9 9 0 5 4
মোট পাঠক