• বীমা সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সৃষ্টি বাংলাদেশের সর্বপ্রথম বীমা ব্লগে আপনাকে স্বাগতম
আজ মঙ্গলবার | ২১ জানুয়ারী, ২০২০ | ৭ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সময়ঃ ০৫:০৫ পূর্বাহ্ন

Photo
যারা ব্যবসা করে না, তাদের কাছে ব্যবসা মানে লাভ আর লাভ

ব্যবসায় লস হওয়া একটি নৈমিত্তিক ঘটনা, বিশেষ করে ব্যবসায়িদের কাছে ৷ আর যারা ব্যবসা করে না, তাদের কাছে ব্যবসা মানে লাভ আর লাভ…

টাকার কাজ যেহেতু গল্পে সারে না, তাই ব্যবসা করতে গেলে লস দিতেই হবে! আমার কাছে এটা দুঃখের কিছু নয় ৷ দুঃখতো তার জন্য যে অনেক কষ্টে ৫০ হাজার টাকা জমিয়ে ব্যবসার নামার পরপরই, খুব বাজেভাবে লস করলো ৷

কঠিন বাস্তবতার সম্মুখিন হয়ে মানুষ লস দিতে বাধ্য হয়, অথবা পরিস্থিতি এমন পর্যায় গিয়ে পৌছায় লোকটি দেখছে, ব্যবসা দিন-দিন লসের দিকে যাচ্ছে কিন্ত সে কিছুই করতে পারছে না ৷ আসলে কিছু না করতে পারার পরিবেশ সে আগেই সৃষ্টি করেছে ৷

ব্যবসায় নামার আগে নতুনদের কিছু উক্তি থাকেঃ

(১)- তুলনামূলক ভালো পণ্য তৈরি করবো ৷
(২)- মার্কেটে সারাদিন সময় দেবো ৷
(৩)- লাভ কম করবো ৷
(৪)- বিভিন্ন অফার দেবো —ইত্যাদি…!
আমরা একটি উদাহরণের মাধ্যমে বিষয়টি পরিষ্কার করবো ৷ মনে করুন আপনি ৫০ হাজার টাকা নিয়ে একটি চানাচুরের প্রকল্প করবেন ভাবছেন ৷ এখন আপনার প্রয়োজন হবে, চানাচুর তৈরির জন্য একটি রুম ৷ দু'জন কারিগর, একজন সেলসম্যান, চানাচুর তৈরির মেশিন, কাঁচামাল ইত্যাদি ৷

ধরে নিচ্ছি সুন্দরভাবেই চানাচুর তৈরি করলেন, এখন আপনাকে বিক্রি করতে হবে ৷

এবার আপনাকে যদি প্রশ্ন করি, প্রতিদিন কত কেজি চানাচুর বিক্রি করতে পারবেন, তবে কি বলবেন আপনি? ৩০/৫০/৮০ কেজি? আমি বলছি (শুরুতে) দৈনিক ৮০ কেজি চানাচুর বিক্রি করতে অনেক কষ্ট হবে, এবং গড়ে ৫০ কেজি চানাচুর বিক্রি করতে পারেন কি না সন্দেহ ৷ তবুও ধরে নিচ্ছি প্রতিদিন ১০০ কেজি চানাচুর বিক্রি করতে পারলেন ৷

এবার একটি হিসেব করুন, প্রতিদিন ১০০ কেজি চানাচুর বিক্রি করলে আপনার কত টাকা লাভ থাকে? এক কেজিতে ৭,৫০ বা ৮ টাকা করে ধরলে ৮০০ টাকা ৷ তাহলে একদিনের লভ্যাংশের নাম হলো ৮০০ টাকা ৷

উদাহরণঃ
সেলসম্যানকে ৫ টাকা কমিশনে পণ্য দিলে একশো কেজি পণ্য বিক্রিতে তার বেতন হবে ৫০০ টাকা ৷ আপনার থাকলো ৩০০ টাকা ৷ ৪৫০ বা ৫০০ টাকার কমে বর্তমানে কোন কারিগর পাবেন না, সে হিসেবে দুজন কারিগরের বেতন হচ্ছে ৯০০-১০০০ টাকা ৷ প্রতিদিন আপনার লস হচ্ছে ৭০০ টাকা ৷

আপনি ভাবতে পারেন, আলাদা রুম ভাড়া না নিয়ে, নিজের ঘরে তৈরি করবেন, কিন্ত আমি বলছি যেখানে প্রতিদিন ১০০ কেজি চানাচুর উৎপন্ন হবে তেমন কোন প্রকল্প, ফ্যামিলি বাসায় করতে পারবেন না, কারণ দু'জন কারিগর, একজন সেলসম্যান নিয়মিত সময় দিবে, আশপাশের দোকানদাররা প্রায়ই পণ্য নিতে আসবে বা কাউকে পাঠিয়ে দিবে, তাই আপনি যদি করেন অন্যকোথাও রুম ভাড়া নিয়েই করতে হবে ৷
হ্যাঁ কিছু ব্যবসা আছে, কোচিং সেন্টার,বিউটি পার্লার, স্যানিটারি ন্যাপকিন, টেইলারিং, নার্সারি, কাগজের ঠোঙা, নকশিকাঁথা, ইত্যাদি পরিবারের সবাই মিলে যৌথভাবে করতে পারে, কিন্ত চানাচুর বা এ জাতীয় ব্যবসা করা যায় না ৷

আপনি যদি ভাবেন একজন কারিগর রেখে নিজে শ্রম দিবেন, তবে তাও করতে পারেন ৷ দু'জন মানুষ সারাদিন পরিশ্রম করে ১০০ কেজি চানাচুর ভাজতে পারলেও প্যাকেট করা অসম্ভব প্রায় ৷

এবার আপনি বলতে পারেন ইউটিউবে অনেক চ্যানেল আছে, সবাই লাভের কথা বলছে, ভালো কিছু ওয়েবসাইটে দেখেছি, এক কেজি চানাচুরে ২০-২৫ টাকা লাভ থাকে ৷ প্রতিদিন কয়েকশ কেজি চানাচুর বিক্রি হয় ৷ অনেক-অনেক সেমিনার… সবাই বলছেলাভ ৷ আর হিসেবে লস! তাহলে নতুনরা কিভাবে ব্যবসা করবে? এ প্রশ্নের উত্তরে আমি বলবো এখানে সবার স্বার্থকতা আছে, ইউটিউবে যারা এসব প্রচার করে, তাদের অধিকাংশ হলো মেশিন বিক্রেতা ৷ যারা ওয়েবে করে হয় সরকারী স্বার্থ নয়তো জনপ্রিয়তার স্বার্থ যেমনই হোক তাদের মৌলিক উদ্দেশ্য আপনাকে অনুপ্রাণিত করা, বাস্তবে আপনার পথ আপনাকেই ঠিক করতে হবে ৷

যা হোক আপনি আমার উপরের বক্তব্যের সাথে একমত না হলে দু'টি কাজ করবেনঃ
(১)- স্থানীয় বেকারী/চানাচুর কারখানায় গিয়ে খোঁজ নিবেন, ১ কেজি চানাচুর তৈরিতে খরচ কত হয় ৷
(২)- নিজের বিবেক দ্বারা বিবেচনা করুন, একটি পণ্যে ৪-জন মানুষ লাভ করে কোম্পানি-ডিলার-স্টোর কিপার-সাধারণ ভোক্তা ৷

শুরুতে বলেছি ব্যবসায় নামার আগে নতুনদের উক্তি

(১)- তুলনামূলক ভালো পণ্য তৈরি করবো ৷
(২)- মার্কেটে সারাদিন সময় দেবো ৷
(৩)- লাভ কম করবো ৷
(৪)- বিভিন্ন অফার দেবো —ইত্যাদি…!
ভালো পণ্য তৈরি করাঃ
আপনি সর্বচ্চ কোয়ালিটির চানাচুর তৈরি করলেন, কিন্ত দেখলেন অন্য কোম্পানির চানাচুর (আপনার থেকে ভালোটা) কেজিতে ৫ টাকা কমে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে! এখন কি করবেন? আপনি যদি আরো ভালো করে ৫ টাকা কমে দিতে চান তাহলে মেশিন কিনতে হবে ২,৭০,০০০ টাকা দামের ৷ কিন্ত আপনি কিনেছেন ম্যানুয়েল হাতে তৈরির মেশিন ৷ ম্যানুয়েল মেশিন দিয়ে ৬ ধরণের চানাচুর হলেও উন্নত ফ্লেভার আসে না, এবং খরচও বেশি পরে ৷

সারাদিন সময় দেয়াঃ
গ্রামের দিকে মার্কেটিং টাইম হলো সকাল ৮-১০ টা পর্যন্ত ৷ এরপর বাজার ঝিমঝাম হয়ে যায়, অনেকে দোকান বন্ধ করে ক্ষেতে-খামারে কাজ করে, যারা থাকে তারাও বসে-বসে ঝিমায় অর্ডার করতে চায় না, যার কারণ তারা ফজরের পরপরই দোকান খুলে ৷

শহরের দিকে মার্কেটিং টাইম হলো ১০-১ টা পর্যন্ত, দুপুর ১ টার পর দোকানের মালিকরা খাবার খেতে যায়, দোকানে থাকে কর্মচারীরা যারা অর্ডার করে না ৷ আপনি সারাদিন মার্কেটে সময় দিয়ে কি করবেন?

কম লাভ/অফারঃ
ব্যবসায় নামার আগে নিয়ত করেছিলেন পণ্য বিক্রির স্বার্থে লাভ কম করবেন, বিভিন্ন অফার দিবেন ৷ উপরের উদাহরণে স্পষ্টভাবে প্রমাণ পেয়েছেন লাভ কম করাতো দূরে থাক, লাভইতো থাকে না! আর কোন কোম্পানি লাভের মান না রেখে পুঁজি থেকে অফার দেয় না ৷

উপরে যেসব উদাহরণ দিলাম তা সম্পূর্ন বাস্তব সম্মত কথা, নিচের উদাহরণটি ভালোভাবে পড়লে আপনি পরিষ্কার বুঝতে পারবেন ৷

ব্যবসায় নামার আগে আমি (কামাল আহমেদ বাগী) আর মিনাল সাহেব প্লান করেছিলামঃ একটি বাজারে কয়টি দোকান থাকে? মিনিমাম ৫০-টি, এর ভেতর ২০ টি ধরলাম চা/কপি/গোডাউন/পার্সের দোকান আর ৩০ টি হলো মনোহরী/স্টেশনারি যেখানে মশার কয়েল চলবে ৷
প্রতি দোকানে যদি আর না হলেও ৩ বক্স করে কয়েল দেই, এক বাজারে ৯০ বক্স, মানে ৩ কার্টুন কয়েল যাবে ৷ আর সবাইতো ৩ বক্স না কেউ ৬ বক্স ১ ডজন করেও রাখে ৷ বিষয়টা কেমন হলো? দিনে ৩ কার্টুন কয়েল বিক্রি করলে ৯০০ টাকা মাসে ২৩৪০০ টাকা ৷

আমরা স্টেটমেন্ট করেছি একটু পরিশ্রম করলে দিনে ২০০ বক্স মশার কয়েল বিক্রি করা কোন ব্যপারই না, এভাবে হলে মাসে ৪০-৫০ হাজার টাকা এমনিতেই থাকবে ৷ —এটা ছিলো আমাদের কল্পনা…………

কিন্ত বাস্তবতা হলো কি জানেন?
প্রথম দিনই মার্কেটে গিয়ে দেখি ১৮ টি কোম্পানির কয়েল!!! ব্লাক ফাইটার, ব্লাক বুস্টার, জাম্বু, তুলসিপাতা, নিমপাতা, এসিআই, আরএকে, জম, সূর্য, ডেলি নাইট… আরো অনেক ৷ অপরদিকে আমি যে কয়েল নিয়ে গেলাম, নতুন মানুষ, নতুন পণ্য, নতুন কোম্পানি! আর কি বলবো গড়ে প্রতিদিন ১৫-২০ বক্স কয়েল বিক্রি হচ্ছে না, কোনো-কোনো দিন এক পিস কয়েলও বিক্রি হয়নি ৷

চানাচুরের উদাহরণ যেটা দিলাম, আমার চোখের সামনেইতো কয়েকটি কারখানা বন্ধ হলো, তাছাড়া আমার নিজেরইতো চানাচুরের ফ্যাক্টরি আছে ৷ কয়েল প্রসঙ্গে বল্লে আপনি নিজেই বাজারে যান, আর দেখুন এক দোকানে কয়টি কোম্পানির কয়েল আছে, আর তাকে জিজ্ঞেস করুন প্রতি সপ্তায় তার কত বক্স কয়েল প্রয়োজন হয় ৷

যা হোক এটা আমার অভিজ্ঞতা, আপনি আরো ভালো কিছু করতে পারেন ৷ আপনার জায়গা-সময়-বিনিয়োগের পরিমাণ ও উজ্জিবীত চেতনা আমার বক্তব্যের বিপরিত হতে পারে, ধন্যবাদ ৷



ব্লগটির ক্যাটাগরিঃ ক্যারিয়ার টিপস

-- ব্লগার মোঃ হাসান এর অন্যান্য পোস্টঃ --
  • সর্বশেষ ব্লগ
  • জনপ্রিয় ব্লগ
7 9 4 7
আজকের প্রিয় পাঠক
1 7 4 9 1 2 1 2
মোট পাঠক