• বীমা সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সৃষ্টি বাংলাদেশের সর্বপ্রথম বীমা ব্লগে আপনাকে স্বাগতম
আজ মঙ্গলবার | ০৭ জুলাই, ২০২০ | ২৩ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | সময়ঃ ০৯:৪৪ অপরাহ্ন

Photo
ইতিবাচক চিন্তা ও সফলতা

মোশাররফ হোসেন: বীমা একটি চ্যালেঞ্জিং পেশা। এ পেশায় সফলতা লাভ করতে হলে অনেক বাধা , বিপত্তি ,প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে নিজ লক্ষ্যে পৌঁছাতে হয়। কারন এ পেশায় একজন বিক্রয় কর্মীকে প্রচুর প্রত্যাখ্যানের সম্মুখীন হতে হয়। সে জন্যই বীমা পেশায় সফল হতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে ইতিবাচক চিন্তার অধিকারী হতে হবে ।

অনেকেই বলেন যে, বীমা পেশায় তো অনেক কর্মীই আসে কিন্তু কিছু দিন পর দেখা যায় সেই কর্মী আর সক্রিয় থাকেনা , পেশা থেকে ঝরে যায়।
এর কারনটি আসলে কি? আসলে বীমা পেশায় কর্মী ঝরে যাওয়ার অন্যতম একটি প্রধান কারন হচ্ছে তাদের ইতিবাচক চিন্তা/দৃষ্টিভঙ্গির অভাব।

যেহেতু এ পেশায় লক্ষ্য অর্জনের পথে অনেক বাধা অতিক্রম করতে হয়, ব্যর্থ হলে থেমে না গিয়ে বার বার ঘুরে দাড়াতে হয় এবং লক্ষ্য অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়ে যেতে হয় , সেহেতু যদি বীমা কর্মী ইতিবাচক চিন্তার অধিকারী না হয় তা হলে এক,দুই বার ব্যর্থ হলেই পুনরায় ঘুরে দাড়ানোর সাহস হারিয়ে ফেলে ।

বীমা কর্মীকে পর্যাপ্ত প্রশিক্ষন না দিয়ে বিক্রয় কাজে পাঠানোর ফলে সেই নতুন কর্মী যখন প্রত্যাখ্যাত হয় তখন নিজেকে অযোগ্য মনে করে নিস্ক্রিয় হয়ে যায় এবং পেশা থেকে হারিয়ে যায়। তাই ইতিবাচক চিন্তাই একজন নতুন কর্মীকে বীমা পেশায় প্রতিষ্ঠিত করতে পারে।

একজন ইতিবাচক চিন্তার মানুষ এগিয়ে যাবেই তাকে আটকে রাখা যায় না । আর একজন নেতিবাচক মানুষকে সাহায্য করা যায় না । আরো সহজ ভাষায় বললে একজন ইতিবাচক মানুষ অপ্রতিরোধ্য। সেই সব মানুষরাই জীবনে উচ্চতার শিখরে গিয়ে পৌছায় যাদের চারিত্রিক দৃঢ়তা আছে ।

সাফল্য হচ্ছে ধারাবাহিক ভাবে নির্দিষ্ট কিছু নীতিকে জীবনে মেনে চলার বাস্তবিক ফলাফল । আপনি যদি কোন কিছু অর্জন করতে চান তবে আপনাকে প্রথমে বিশ্বাস করতে হবে যে ,আপনি তা অর্জন করতে পারবেন। যদি এই মুহুর্তে তা অর্জন করার দক্ষতা বা যোগ্যতা নাও থাকে তবুও যদি বিশ্বাস করেন যে আপনি পারবেন তাহলে আপনার দ্বারা তা অর্জন করা সম্ভব। কারন বিশ্বাস থেকে আসে চেষ্টা এবং চেষ্টা থেকে আসে অর্জন ।

আপনি যদি বিশ্বাস করেন যে আপনি পারবেন তাহলে আপনি বার বার ব্যর্থ হয়েও হাল ছেড়ে দিবেন না । ফলে ভুল ও ব্যর্থতা থেকে শিক্ষা নিয়ে আপনি এক সময় সফল হবেন। অন্যদিকে যদি আপনি বিশ্বাস হারিয়ে ফেলেন তাহলে আপনি নেগেটিভ চিন্তা করতে শুরু করবেন এবং এক , দুবার ব্যর্থ হলে আপনি চেষ্টা করা ছেড়ে দিবেন ফলে আপনি চূড়ান্ত ভাবে ব্যর্থ হবেন।

যাদের মাঝে পজেটিভ চিন্তা আছে তারা ব্যর্থতাকে ভয় পায় না । যতবারই ব্যর্থ হোক, সফলতা পাওয়ার আগ পর্যন্ত তারা চেষ্টা চালিয়ে যায়। কারন তারা বিশ্বাস করে তারা যা করতে যাচ্ছে তা করা অবশ্যই সম্ভব। অন্যেরা যখন কোন আশা দেখতে না পেয়ে পিছিয়ে যায় তখন পজেটিভ চিন্তার মানুষরা এগিয়ে গিয়ে অন্যদের মনে সাহস যোগায়। এই কারনেই অন্যেরা পজেটিভ চিন্তার মানুষদেরকে নেতা হিসেবে মেনে নেয়।

পজেটিভ চিন্তার সাথে সাথে আপনাকে সেই অনুযায়ী পরিকল্পনা গ্রহন ও পরিশ্রম ও করতে হবে । না হলে আপনার পজেটিভ চিন্তা শুধুমাত্র আকাশ কুসুম কল্পনা ছাড়া আর কিছুই হবেনা।
একজন বীমা পেশাজীবীর ইতিবাচক চিন্তার সারমর্ম হওয়া উচিৎ নিম্নরুপঃ

১। জীবনে হতাশ না হয়ে জীবনের প্রতি ইতিবাচক ও গঠনমুলক দৃষ্টিভঙ্গি রাখতে হবে।
২। যে কোন পরিস্থিতিতে নিজেকে সহজ ভাবে মানিয়ে নিতে হবে।
৩। অন্যের মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে ।
৪। অন্যের দোষ ত্রুটির চেয়ে গুনাবলীর দিকে বেশি নজর দিতে হবে।
৫। অহমিকা নয় , সহজ সরল জীবন যাপন করতে হবে।
৬। বিভিন্ন মানবিক গুনে গুনান্বিত হতে হবে।
৭। গ্রাহক ও সম্ভাব্য গ্রাহককে সেবাদানের বিষয়ে সর্বদা আগ্রহী থাকতে হবে।

মোশাররফ হোসেন
এ,এম,ডি
ইসলামী আদর্শ বীমা প্রকল্প
সানলাইফ ইনসিওরেন্স কোম্পানী লিঃ

সদস্য: Insurance BD Group (বাংলাদেশ বীমা গোষ্ঠী)

 

[ আপনিও পারেন  “Insurance BD Group (বাংলাদেশ বীমা গোষ্ঠী)” এর একজন গর্বিত সদস্য হয়ে নিজের জ্ঞানচর্চা ও বীমা শিল্পের ইতিবাচক পরিবর্ত‍নে ভূমিকা রাখতে।  আগ্রহী ব্যক্তিগন Insurance BD Group (বাংলাদেশ বীমা গোষ্ঠী) এ যুক্ত হতে এই লিংকে ক্লিক করুন- https://www.facebook.com/groups/533586794169725/ ]


-- ব্লগার Insurance BD Group এর অন্যান্য পোস্টঃ --
আমার সম্পর্কে
  • সর্বশেষ ব্লগ
  • জনপ্রিয় ব্লগ
2 3 1 8 4
আজকের প্রিয় পাঠক
2 4 3 3 7 4 8 5
মোট পাঠক