• বীমা সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সৃষ্টি বাংলাদেশের সর্বপ্রথম বীমা ব্লগে আপনাকে স্বাগতম
আজ বৃহস্পতিবার | ২২ অক্টোবর, ২০২০ | ৭ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | সময়ঃ ০৬:২৫ পূর্বাহ্ন

Photo
মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ২৫ বছর পদার্পণে আমাদের প্রত্যাশা

নিজাম উদ্দিন আহমদ: মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স ২৫ বছরে পদার্পণ করছে। এটা আমাদের একদিকে সুখের খবর অন্যদিকে বিগত ২৪ বছরে মেঘনা লাইফের মাধ্যমে পলিসিহোল্ডার কতটুকু উপকৃত হয়েছেন কতটুকু ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তার যেমনি মূল্যায়ন দরকার, তেমনি মেঘনা লাইফের বীমা কর্মীর কার্যক্রম পর্যালোচনা করাও মূখ্য বিষয়। বীমা শিল্পের সাথে ৩৫ বৎসর অবস্থান তথা মেঘনা লাইফে ২৪ বৎসর জড়িত থাকা অবস্থায় আমার মূল্যায়ন বাংলাদেশে লাইফ ১ম পৃষ্ঠার পরঃ ইন্স্যুরেন্সগুলো বীমা শিল্পের নিয়ম তথা এ্যকচ্যুয়ারিয়াল নিয়মনীতি মেনে গড়ে উঠেনি। যার ফলে বাংলাদেশের পলিসিহোল্ডার এবং বীমাকর্মীগণ তেমন উপকৃত হননি। অনেকেই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।

জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু বীমা শিল্পে জড়িত ছিলেন। এজন্য বীমা শিল্প ধন্য। বঙ্গবন্ধু বীমা শিল্পে ১লা মার্চ কাজে যোগদান করেছেন বলে সরকার এদিনকে বীমা দিবস ঘোষণা করেছে। সারাদেশে প্রতিটি জেলা উপজেলায় সরকারী পর্যায়ে বীমা দিবস পালিত হয়েছে এবং এখন থেকে প্রতি বছর পালিত হবে। সরকারের স্থানীয় প্রশাসন এখন থেকে প্রতিটি বীমা অফিস, বীমাকর্মী, পলিসিহোল্ডার এর সুখ দুঃখের খবর নেবে । সাথে সাথে বীমা কোম্পানীগুলো বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক আরোপিত দিক নির্দেশনা ও বীমার আইন-কানুন মেনে চলছে কিনা তথা কোন কারণে পলিসিহোল্ডার বীমা করে প্রতারিত হচ্ছে কিনা তা দেখভাল
করবে।

মেঘনা লাইফ বিগত ২৪ বছরে ঘটে যাওয়া ভুলভ্রান্তি শুধরে স্বার্থকভাবে পলিসিহোল্ডারদের মৃত্যুদাবী, ম্যাচুরিটিসহ সকল ধরণের আর্থিক সুবিধাদি নিয়মমাফিক প্রদান করে যাচ্ছে। বীমাকর্মী তথা কোম্পানীর সাথে সংশ্লিষ্ট প্রত্যেক কর্মকর্তা/কর্মচারী তাদের ন্যায্য প্রাপ্য পাচ্ছেন। আমি প্রথমেই বলেছি সারাদেশে ২/১ টি কোম্পানী ছাড়া বেশী সংখ্যক কোম্পানীই এ্যকচুয়ারিয়াল প্রিন্সিপাল তথা বীমা নিয়মনীতি না মেনে গড়ে উঠেছে। মেঘনা লাইফ ও তার থেকে ব্যতিক্রম ছিল না। ওউজঅ, সরকার, পলিসিহোল্ডারগণের কথা চিন্তা করে বর্তমানে সব কোম্পানীকে বীমার নিয়মনীতি মেনে চলতে বাধ্য করছে। ইতোমধ্যে পলিসিহোল্ডারগণের স্বার্থ বিবেচনায় ১০টি কোম্পানী তাদের স্থাবর-অস্থাবর সম্পাত্তি বিক্রি করে পলিসিহোল্ডারগণের পাওনা অর্থ ফেরত দিতে নির্দেশ দিয়েছে। কয়েকটি কোম্পানীতে প্রশাসক নিয়োগ দেয়া হয়েছে, আরও কয়েকটি কোম্পানীতে সরকার কর্তৃক প্রশাসক নিয়োগের প্রক্রিয়া চলছে। কয়েকটি কোম্পানীর মালিকানা পরিবর্তন হয়েছে, অনেক কোম্পানীর বোর্ড সদস্যের পরিবর্তন হয়েছে।

তাই ২৫ বছরে পদার্পণে আপনাদের কাছে আমার আকুল আহবান, বীমা কর্মী হিসেবে আমরা কোন পলিসিহোল্ডারের সাথে মিথ্যা কথা বলবো না, বীমার নিয়মকানুন বুঝিয়ে পলিসি করাবো, সঙ্গতি না থাকলে বা পলিসিহোল্ডোর নিয়মিত রিনিওয়াল প্রিমিয়াম দিতে সমর্থ না হলে তার পলিসি করাবো না। কমিশন হউক বা যে নামেই হউক আপনি পলিসিহোল্ডার থেকে যে আর্থিক সুবিধা নিচ্ছেন তার বিনিময়ে পলিসিটি চালু রাখার ব্যবস্থা করা আপনার দায়িত্ব। সাথে সাথে বীমাকর্মী হিসেবে বীমার নিয়ম অনুযায়ী আপনিও আপনার ন্যায্য পাওনা থেকে যেন বঞ্চিত না হন সেটা খেয়াল রাখবেন। তবেই বীমা শিল্প স্বার্থক হবে। আপনার জীবন ধন্য হবে।

আমি চেয়ারম্যান হলেও নিজেকে একজন বীমাকর্মী হিসেবে মনে করি। পলিসিহোল্ডার বীমা করে উপকৃত হবেন, বীমাকর্মীগন বীমায় কাজ করে ন্যায্য পাওনা পাবেন। একজন বীমাকর্মী হিসেবে তথা দীর্ঘ ২৪ বছর আপনাদের অভিভাবক হিসেবে কোম্পানীর চেয়ারম্যান থেকে এটাই আমার আপনাদের কাছে প্রত্যাশা।

আর কতদিন আপনাদের সাথে থাকতে পারবো জানিনা, আমি না থাকলেও মেঘনা লাইফ যুগযুগ ধরে বেঁচে থাকবে ইনশা-আল্লাহ। মেঘনা লাইফের পলিসিহোল্ডার ও বীমাকর্মীগন ন্যায্য পাওনা পাচ্ছে এটা হলে কবরে গিয়েও শান্তি পাবো। আমার দৃষ্টিতে শতকরা ৯৫ জন কর্মী তথা কর্মকর্তা সৎ ও নিষ্ঠাবান। গোলমাল ৫ ভাগ কর্মকর্তাকে নিয়ে। আসুন আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে, সবাই ঠিক হয়ে, মেঘনা লাইফকে সুন্দর নিয়মতান্ত্রিক কোম্পানী হিসেবে গড়ে তুলি। তবেই আমাদের জীবন স্বার্থক হবে। তবেই আমরা দুনিয়াতে ভাল থাকবো, পরকালেও ইনশা-আল্লাহ ভাল থাকবো।



ব্লগটির ক্যাটাগরিঃ সাম্প্রতিক খবর , বীমা সংবাদ

-- ব্লগার Admin Post এর অন্যান্য পোস্টঃ --
  • সর্বশেষ ব্লগ
  • জনপ্রিয় ব্লগ
6 4 3 5
আজকের প্রিয় পাঠক
2 7 6 6 1 3 8 3
মোট পাঠক