• বীমা সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সৃষ্টি বাংলাদেশের সর্বপ্রথম বীমা ব্লগে আপনাকে স্বাগতম
আজ বৃহস্পতিবার | ২২ অক্টোবর, ২০২০ | ৭ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | সময়ঃ ০৬:২৯ পূর্বাহ্ন

Photo
কোরআন হাদীসের আলোকে ইসলামী বীমার প্রয়োজনীয়তা

নিম্ন লিখিত কারণে ইসলামী বীমা প্রয়োজনঃ
০১। বীমা একটি ব্যবসা, আর ইসলামী বীমা হলো শরীয়াহ্ ভিত্তিক জায়েজ ব্যবসা । আল-কুরআনের সুরা আল-বাকারার ২৭৫ নং আয়াতে আল্লাহ বলেছেন- “আল্লাহ ব্যবসাকে হালাল করে দিয়েছেন এবং সুদকে  করে করেছেন হারাম”। অতএব এ হালাল পেশায় নিয়োজিত থেকে হালাল রুজি অর্জন করা মুসলমান হিসাবে আমাদের একান্ত কর্তব্য্ (ফরজ)।  

০২। ইসলামী বীমা পদ্ধতি হলো পারস্পারিক সহযোগীতা মূলক একটি কল্যানধর্মী সমবায়ী সংস্থা । এ ব্যাপারে মহান আল্লাহর বাণী হচ্ছে “তোমরা ভাল ও তাকওয়া মূলক কাজে পরস্পরকে সহযোগীতা কর” (সুরা আল-মায়দা ২নং আয়াত)। তাই মুসলমানদের কল্যাণের জন্য ইসলামী বীমা ব্যবস্থায় শরীক থাকা আবশ্যক ।

 ০৩। মহান আল্লাহ্ সুদকে হারাম করেই ক্ষান্ত হননি। তিনি ইহার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন । “হে ঈমানদার গণ! আল্লাহকে ভয় করো এবং লোকদের কছে তোমাদের যে সুদ বাকী রয়েছে তা ছেড়ে দাও। যদি সত্যিই তোমরা ঈমান এনে থাকো । কিন্ত যদি তোমরা এমনটি না করো তাহলে জেনে রাখ । এটা আল্লাহ্ ও তাঁর রাসুলের পক্ষ থেকে তোমাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা” (সুরা আল-বাকারা ২৭৯ নং আয়াত) এজন্য সুদভিত্তিক অর্থনীতি উৎখাত করে ইসলামী অর্থনীতি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ইসলামী বীমা ব্যবস্থা সম্প্রসারণের সংগ্রামে মুসলমান হিসাবে অংশ গ্রহন ও একটি ফরজ কাজ ।

০৪। বীমা পলিসিতে মৃত্যূ দাবী পরিশোধের মাধ্যমে ইয়াতিম সন্তানদের ব্যয়ভার বহনের ব্যবস্থা আছে । এ ব্যাপারে মহান আল্লাহ্ বলেছেন, “দুনিয়া ও আখেরাতের বিষয়ে । আর তোমার কাছে জিজ্ঞেস করে ইয়াতিম সংক্রান্ত হুকুম । বলে দাও, তাদের কাজ কর্ম সঠিক ভাবে গুছিয়ে দেয়া উত্তম আর যদি তাদের ব্যয়ভার নিজের সাথে মিশিযে নাও। তাহলে মনে করবে তারা তোমাদের ভাই । বস্তুত অমঙ্গল কামী ও মঙ্গল কামীদের কে আল্লাহ্ জানেন”(সুরা আল বাকারা ২২০ নং আয়াত) তাই মুসলমানদের ইয়াতিম সন্তান লালন পালনে ইসলামী বীমা পলিসির অপরিহার্যতা লক্ষ্যণীয়।  

০৫। অনাগত ভবিষ্যতের সংকট মোকাবেলায় সঞ্চয় নীতিও মহান আল্লাহ্ কর্তৃক প্রদত্ত অনুকরণ যোগ্য দৃষ্টান্ত আল-কুরআনে বের্ণীত আছে । যেমনঃ- সুরায়ে ইউসুফে ৮৭ ও ৪৮ নং আয়াতে বলা হয়েছে- ইউসুফ বললো, সাত বছর পর্যন্ত তোমরা ক্রমাগত ভাবে চাষাবাদ করতে থাকবে। এ সয়ম তোমরা যে সকল ফসল কাটবে । অল্প অংশ তোমাদের প্রয়োজনে বাহির করবে । বাকীগুলো উহার গুচ্ছের মধ্যে রেখে দাও । এরপর  সাত বছর খুব কঠিন আসবে। এই সময় তোমাদের সঞ্চিত শস্য হতে খেয়ে ফেলবে, যদি কিছু উদ্ধত্ত থাকে তা হচ্ছে তোমরা যা সংরক্ষণ করে রেখেছো” অতএব মুসলমান যদি সঞ্চয় করে আর তা যদি ইসলামী বীমায় হয় তাহলে সেটা হবে সুন্নাতে ইউসুফ (আঃ)।

০৬। যেহেতু ইসলামী  বীমা হচ্ছে বিপদাপদ মোকাবেলায় মুসলমানদের পারস্পরিক সংযোগী সংস্থা অএতব তা সুন্নাত সম্মত ব্যবস্থা যেমন রাসুল (সাঃ)বলেছেন – এক মুসলমান অন্য মুসলমানে ভাই। সে তার উপর জুলুম করেনা এবং অসহায়, অবস্থায় ছেড়ে দেয়না। যে তার ভাইয়ের প্রয়োজনে পুরনে অগ্রসর হবে। আল্লাহ্ তার প্রয়োজন পুরন করবেন। আর যে ব্যক্তি তার ভাই-এর বিপদ ও সমস্যা দূর করবে । আল্লাহ্ কিয়ামতের দিন তার অসংখ্য বিপদ দূর করবেন। (বুখারী ও মুসলিম) 

০৭। ইসলামী বীমা হলো মুসলমানদের দারিদ্রতা দূর করার একটি শরীয়াহ্ সম্মত ব্যবস্থা । এ ব্যাপারে আল্লাহর রাসুল (সাঃ) বলেন, আমি দারিদ্র হতে আল্লাহর নিকট পানা চাই, কেননা তা মানুষকে কুফরীর দিকে নিয়ে যায় । (আবু দাউদ ও বায়হাকী) তাহলে আমরা কেন কুফরী ঠেকাতে ইসলামী বীমায় সঞ্চয় করবো না ?  

০৮। ইসলামী বীমা পলিসি বীমাকারীর মৃত্যূতে তার মৃত্যূ দাবীর টাকা দিয়ে তার রেখে যাওয়া ঋণ পরিশোধে সহায়ক ভুমিকা রাখে । যেমন ; রাসুল (সাঃ) বলেছেন – ‘ঋণের কারণে মুমিনের আত্মা ঝুলে থাকে ( জান্নাতের প্রবেশ পথে ) তার ঋণ পরিশোধ না হওয়া পর্যন্ত’ । (তিরমিযী, রিয়াদুস সালিহীন হাদীস নং ৯৪৩) ঋণ গ্রস্থ মুসলিমের জন্য ইসলামী বীমা পলিসি গ্রহন করা একান্ত আবশ্যক ।

০৯। ইসলামী বীমা ব্যবস্থায় বিধবা ও বৃদ্ধের প্রয়োজন মেটানোর অর্থ সহায়তার ব্যবস্থা আছে । মানুষের বিধবা ও বৃদ্ধাবস্থায় এরূপ কল্যাণ মূলক কাজের মর্যাদার ব্যাপারে আল্লাহর রাসুল (সাঃ) বলেছেন  “ বিধবা, বৃদ্ধ ও মিসকীনের সাহায্যে সহায়তা জন্য প্রচেষ্টাকারী আল্লাহর পথে মুজাহিদের সমতূল্য ”। (বুখারী ও মুসলিম, রিয়াদুস সালিহীন হাদীস নং ২৬৫)
 
১০। সুদের কারণে সমাজে অভাব অনটন সৃষ্টি হয়, ইসলামী বীমা সুদ উৎখাতে ভূমিকা রাখছে। এতে মুসলমানদের শরীক থাকা আবশ্যক । রাসুল (সাঃ) বলেন  “সুদের দ্বারা সম্পদ বৃদ্ধি পেলেও পরিনামে অভাব অনটন আসবেই ”। (ইবনে মাজাহ, বায়হাকী ও মুসনাদে আহমদ) প্রচারেঃ- হাফেজ  মাওলানা  মো: সাদ্দাম  হোসাইন ।




-- ব্লগার Admin Post এর অন্যান্য পোস্টঃ --
  • সর্বশেষ ব্লগ
  • জনপ্রিয় ব্লগ
6 4 9 8
আজকের প্রিয় পাঠক
2 7 6 6 1 4 4 6
মোট পাঠক