• বীমা সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সৃষ্টি বাংলাদেশের সর্বপ্রথম বীমা ব্লগে আপনাকে স্বাগতম
আজ শনিবার | ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ১১ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | সময়ঃ ১১:০১ অপরাহ্ন

Photo
ফারইষ্ট ইসলামী লাইফে মরনোত্তর বীমা দাবীর চেক হস্তান্তর

ফারইষ্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানীতে শিশু নিরাপত্তা ও বিবাহ বীমা গ্রহণ করেছিল ভেড়ামারা উপজেলার ধরমপুর ইউনিয়ন পরিষদের বৃত্তিপাড়া গ্রামের আখতার হোসেন ড্রাইভার। ১১ হাজার টাকা করে বার্ষিক প্রিমিয়াম জমা দিয়েছিলো মাত্র ৩ বছর। এরপরই মৃত্যুবরণ করেন তিনি। বীমার চুক্তি অনুযায়ী বীমা গ্রাহকের শিশুকন্যা জান্নাতুল ফেরদৌসী সেতু প্রতিবছর ১২ হাজার টাকা করে ৭ বছর ৮৪ হাজার শিক্ষাবৃত্তি পেয়েছে। বীমার মেয়াদ ১০ বছর পূর্ণ হওয়ার পর এবার বিবাহ উপযুক্ত জান্নাতুল ফেরদৌসী সেতু পেল লাভ সহ ১ লক্ষ ৫২ হাজার টাকা। গতকাল রবিবার বিকেলে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান ও দোয়া মাহাফিলের মাধ্যমে তার হাতে চেক তুলে দিয়েছে ফারইষ্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানীর ভেড়ামারা ব্রাঞ্চ অফিস। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন, ভেড়ামারা পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব শামিমুল ইসলাম ছানা। তিনি বলেন, ফারইষ্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স তাদের কমিটমেন্ট রক্ষা করে মরণোত্তর বীমা দাবী সহ গ্রাহকের সকল দাবী যথাসময়ে পরিশোধ করে মানুষের আস্থা অর্জন করেছে। বীমার প্রতি মানুষ যেখানে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে সেখানে বহুালাংশে সফল ইসলামী এ বীমা কোম্পানী। তিনি সঞ্চয়ের ক্ষেত্রে সকল মানুষ কে ফারইষ্ট ইসলামী লাইফে সঞ্চয় করার অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, একটি মানুষের প্রয়োজন তার এবং তার অবর্তমানে পরিবারের আর্থিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। ফারইষ্ট ইসলামী লাইফ বীমা মানুষের সেই প্রত্যাশা পূরণ করতে সক্ষম হয়েছে।  

ভেড়ামারা শহরের জোনাল এন্ড ব্রাঞ্চ অফিসে আয়োজিত মরনোত্তর বীমা দাবীর চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে সার্বিক চিত্র তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, ফারইষ্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী’র ফরিদপুর ডিভিশনের ইনচার্জ, কোম্পানীর জয়েন্ট এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট শেখ আব্দুর রশিদ। তিনি বলেন, বহিবিশ্বে বীমা শিল্প যেভাবে প্রতিষ্ঠিত সেইভাবে বাংলাদেশেও প্রতিষ্ঠা করনের লক্ষ্যে বর্তমান সরকার নিরলস ভাবে কাজ করে চলেছে। ইতোমধ্যেই সরকার বহু গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। আমাদের সামাজিক নিরাপত্তা এবং পারিবারিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বীমা শিল্পের বিকল্প নেই। এ ক্ষেত্রে ফারইষ্ট ইসলামী লাইফ তাদের সেরা ম্যানেজমেন্ট এবং গ্রাহক সেবা দিয়ে মানুষের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। তিনি বলেন, প্রত্যেকটি মানুষের উচিত ফারইষ্ট ইসলামী লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানীতে সঞ্চয় গড়ে তোলা। ভেড়ামারা জোনাল অফিসের ইনচার্জ কোম্পানীর জয়েন্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ ফারুক হোসেন’র সভাপতিত্বে এবং ভেড়ামারা ব্রাঞ্চ অফিসের ইনচার্জ কোম্পানীর ফাষ্টএভিপি শাহ্ জামাল’র উপস্থাপনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ধরমপুর ইউনিয়ন পরিষদ’র চেয়ারম্যান শাহাবুল আলম লালু, বিজেএম ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ শিক্ষাবিদ মোঃ আসলাম উদ্দীন, শিল্পপতি আনিছুর রহমান। বিশেষ আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, কুষ্টিয়া সর্ভিস সেন্টার ইনচার্জ ও কোম্পানীর ভাইস প্রেসিডেন্ট আলহাজ্ব মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে ভেড়ামারা উপজেলার রাজনীতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবি সংগঠনের ব্যক্তিরা অংশগ্রহণ করেন।


-- ব্লগার মন্জুর আলী শাহ্ এর অন্যান্য পোস্টঃ --
আমার সম্পর্কে
  • সর্বশেষ ব্লগ
  • জনপ্রিয় ব্লগ
2 2 8 3 3
আজকের প্রিয় পাঠক
2 6 9 0 3 7 5 4
মোট পাঠক